দুর্গাপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা 

আল নোমান শান্ত

স্টাফ রিপোর্টার

নেত্রকোণার দুর্গাপুরে ঘরের ধরনার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে কহিনুর বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। (২৭ নভেম্বর) রোববার বিকেলে উপজেলার বাকলজোড়া ইউনিয়নের দক্ষিন পাইকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কুহিনুর বেগম ওই এলাকার সাইফুল ইসলামের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পারিবারিক কলহের জেরে সবার অগোচরে স্বামীর বসত ঘরের ধরনার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে কুহিনুর বেগম। বিকেলের দিকে গৃহবধূ কুহিনুরের সাড়াশব্দ না পেলে নিহতের জা স্বর্ণা আক্তার খোঁজ নিতে বসত ঘরের সামনে দিয়ে গেলে কুহিনুর বেগমকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার ওসি মোহাম্মদ শিবিরুল ইসলাম জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।




আগামী মাস থেকে ডলার সংকট দূর হবে: সালমান এফ রহমান

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, আমাদের ব্যাংকগুলোতে যে ডলার সংকট আছে আগামী মাস থেকেই তা দূর হবে। যে জিনিসগুলো আমাদের আমদানি করা প্রয়োজন, সেগুলো রমজানের আগেই আমদানি করা হবে। রমজানে আমাদের কোনো সমস্যা হবে না।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সালমান এফ রহমান আরও বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে সব কিছুর দাম বেড়ে গেছে। আমদানি করতে গিয়ে আমাদের দেশের ওপরও চাপ পড়েছে। তার পরও প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনায় সরকার দেশের এক কোটি পরিবারকে টিসিবির মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য কম মূল্যে আমরা পৌঁছে দিচ্ছি। আর এই এক কোটি পরিবারের মাধ্যমে চার থেকে পাঁচ কোটি মানুষ সেটি ভোগ করছেন। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় চার-পাঁচ কোটি মানুষকে আমরা সরাসরি এই সহযোগিতা দিলে আর কোনো সমস্যা হবে না।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দেশের সব জায়গায়ই কলকারখানা গড়তে হবে-এটা প্রয়োজন নেই। মেহেরপুর জেলায় বিভিন্ন ফসল ও মাছের চাষ জেলাকে সমৃদ্ধ করছে। প্রধানমন্ত্রী কৃষিজমি নষ্ট করে কলকারখানা গড়ার অনুমতি দিচ্ছেন না। এখন আর কলকারখানা না গড়ে ১০০টা বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার চেষ্টা করা হচ্ছে। এলাকার মানুষ জমি দিলে এই এলাকায় ফুড প্রসেসিং বা কৃষিভিত্তিক একটা বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার পরিকল্পনা নেওয়া সম্ভব হবে।




দুর্গাপুরের সিনিয়র সাংবাদিক সাহাদাত হোসেন কাজল আর নেই

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:
দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সিনিয়র সাংবাদিক সাহাদাত হোসেন কাজল (৬৪) শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন। (ইন্না …………. রাজিউন)। তিনি দৈনিক বাংলা বাজার, দৈনিক আমাদের সময়, দৈনিক ঢাকা প্রতিদিন পত্রিকায় দুর্গাপুর উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন।
তার মৃত্যুতে স্থানীয় সংসদ সদস্য মানু মজুমদার, উপজেলা চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস আরা ঝুমা তালুকদার, দুর্গাপুর উপজেলা প্রশাসন, নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাব, দুর্গাপুর প্রেসক্লাব, কলমাকান্দা প্রেসক্লাব, কমরেড মণিসিংহ মেলা উদযাপন পরিষদ, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদ, ডিএনবি নিউজ পরিবার, বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, দুই মেয়ে, নাতি নাতনি সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে দুর্গাপুর প্রেসক্লাব তিন দিনের এক শোক ঘোষনা করেন।




দুর্গাপুরে প্রধান সড়ক দখল করে অটো স্ট্যান্ড,যানজটে ভোগান্তি 

আল নোমান শান্ত
স্টাফ রিপোর্টার :
নেত্রকোণার দুর্গাপুর পৌর শহরের ব্যস্ত চার রাস্তার মোড়ের সড়ক দখল করে গড়ে উঠেছে অটো স্ট্যান্ড। অনুমোদনহীন এসব স্ট্যান্ডের কারণে প্রতিদিন যানজট লেগেই থাকে। ফলে দীর্ঘদিন ধরে পথচারীদের দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে। নির্দিষ্ট কোনো স্ট্যান্ড না থাকায় প্রধান সড়ক দখলে নিচ্ছেন অটো চালকরা। ব্যস্ত সড়কের যেখানে-সেখানে যাত্রী ওঠা-নামা করাচ্ছেন। এতে সড়ক সংকুচিত হয়ে সৃষ্টি হচ্ছে তীব্র যানজটের। এখান দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষেরা।
সরেজমিনে দেখা গেছে, পৌর শহরের চার রাস্তার মোড়ের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার প্রেসক্লাব মোড়, কালীবাড়ি মোড় সড়কের দু’পাশ দখল করে গড়ে উঠেছে অটো রিকশার স্ট্যান্ড। স্ট্যান্ডগুলো থেকে অটোরিকশা ছেড়ে যাওয়ার খানিক পর পর সড়কের মধ্যে হঠাৎ দাঁড়িয়ে যাত্রী ওঠিয়ে থাকে। সড়কের দু’পাশ দখল করে এলোমেলো অবস্থায় দাঁড়া করিয়ে রাখা হয়েছে অটো ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা। যার কারণে অন্যান্য যানবাহন স্বাচ্ছন্দ্যে চলাচল করতে পারে না। এতে যানবাহনের জটলা লেগে তীব্র জ্যাম লেগে যায়। সড়কের মধ্যে এভাবে স্ট্যান্ড গড়ে ওঠায় জনগণের পায়ে হাঁটাও কষ্টকর হয়ে উঠেছে।
পথচারীরা জানান, কোনো প্রয়োজনে বাজারে এলে ভোগান্তির শেষ থাকে না। রাস্তার দু’পাশ দখল করে অটোরিকশার স্ট্যান্ড বসানো হয়েছে। মাঝখান দিয়ে একটি গাড়ি ঠিকমতো যেতে পারে না। দীর্ঘ সময় জ্যাম লেগে থাকে। কিন্তু যানজট নিরসন বা বাসিন্দাদের ভোগান্তি কমাতে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ বা প্রশাসন কোনো উদ্যোগ নিচ্ছে না।
একাধিক দোকানিরা বলেন, তাঁদের দোকানের সামনে এমনভাবে প্রাচীর করে অটোরিকশা দাঁড়িয়ে থাকে,কোনো কাস্টমার আসতে পারে না। এতে ব্যবসায়ীরা চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।যানবাহনগুলো একটু সরাতে বললেও চালকেরা ঝগড়া শুরু করেন। অপরদিকে জরুরি রোগী নিয়ে যাওয়া এক এম্বুলেন্স চালক বলেন, সড়কের ওপর যেখানে-সেখানে এভাবে অটোরিকশা দাঁড়িয়ে রাখে। জরুরি রোগী নিয়ে হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার পর প্রেসক্লাব মোড়ের চার রাস্তার মোড়ে এসে দেখা যায় জ্যাম এতে এখানেই অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়।
এ নিয়ে(ভারপ্রাপ্ত)পৌর মেয়র মো. মশিউজ্জাম বাদল বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে সুশৃঙ্খল পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে ও এ-সকল অটো স্ট্যান্ড উচ্ছেদের জন্য শিগগিরই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



দুর্গাপুরের প্রতিবন্ধি রতন কে হুইলচেয়ার প্রদান

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌরএলাকার চকলেঙ্গুরা গ্রামের এক অসহায় প্রতিবন্ধি রতন দাস (৩৫) কে হুইলচেয়ার বিতরণ করলেন জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর। শুক্রবার দুপুরে এ চেয়ার বিতরন করা হয়।

ছোট বেলা থেকেই রতন দাস স্বপ্ন দেখতেন প্রতিষ্ঠিত হয়ে পরিবারের সেবায় এগিয়ে আসবেন। সে পেশায় কাঠমিস্ত্রির কাজ করতো। ২০১৫সনে তার মাথায় টিউমার দেখা দেয়। টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে না পারায় শরীরে হানা দেয় বিভিন্ন রোগ। ২০১৮ সনের শেষের দিকে পায়ে হেটে চলার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে রতন। তখন থেকেই তার বৃদ্ধ পিতা তাকে নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে সামান্য চিকিৎসা ও খাবার যোগার করতেন। চলাফেরার জন্য রতনের ছিলনা কোন বাহন। এক সময় বাবার কাঁধে চড়েই ভিক্ষে করতো সে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি হুইলচেয়ার দেয়ার পর দীর্ঘদিন ওই চেয়ারে করেই ভিক্ষাবৃত্তি করতো রতন দাস। গতবছর বাবার মৃত্যুর পর একা হয়ে যায় সে। এ বছরের শুরুর দিকে ওই চেয়ারটি ভেঙ্গে যাওয়ায় ঘরে বসে অনাহারে থাকতে হয় তাকে। পরবর্তিতে স্থানীয়দের আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে একটি উন্নত মানের হুইলচেয়ার প্রদান করা হয় রতন দাসকে।

স্থানীয়দের দাবী, দেশের বিত্তশালীগন যদি রতন দাসের চিকিৎসার দায়ভারে সহায়তা করেন, তাহলে হতদরিদ্র রতন আবার উঠে দাঁড়াবে। চেয়ার বিতরণ কালে অন্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক দ্রæব সরকার, ব্যবসায়ী দেবেস চন্দ্র সাহা, বুলিয়া প্রসাদ প্রমুখ।




দুর্গাপুরে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা অনুষ্ঠিত

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক :

নেত্রকোণার দুর্গাপুরে দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে একটি র‍্যালী পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এ মেলার উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস আরা ঝুমা তালুকদার। পরবর্তী আলোচনা সভায় উপজেলা একাডেমীক সুপারভাইজার নাসির উদ্দিনের সঞ্চালনায় ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব উল আহসান এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস আরা ঝুমা তালুকদার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আরিফুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব হোসেন তালুকদার, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু তাহের ভূঁইয়া, কৃষি কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান, প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা শিমু দাস, আইসিটি কর্মকর্তা সামিউল ইসলাম,দুর্গাপুর থানা ওসি শিবিরুল ইসলাম, প্রেসক্লাব সভাপতি এস.এম রফিকুল ইসলাম রফিক, আওয়ামী লীগ নেতা বিপ্লব মজুমদার প্রমুখ।

পরে অতিথিরা মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। দিনব্যাপী এই মেলায় বিভিন্ন দপ্তরের ১৮টি স্টল অংশগ্রহণ করে।

 




নকীব পদকে ভূষিত তিন গুণী লেখক-সাহিত্যিক

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:

মাসিক নকীবের আয়োজনে আজ শুক্রবার বিকেলে বাংলামোটর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে নকীব পদক প্রদানে জাতীয় সাহিত্য প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে শিশু-কিশোরদের নিয়ে সাহিত্য চর্চায় নকীবের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, এমন প্রতিযোগিতা ও সম্মাননার ধারাবাহিকতা বাংলা ভাষা ও সাহিত্য চর্চায় নবীনদের উৎসাহিত করবে।

নকীব সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি নূরুল করীম আকরাম এর সভাপতিত্বে ও সম্পাদক সুলতান মাহমুদ এবং নির্বাহী সম্পাদক জিয়াউল আশরাফ এর যৌথ সঞ্চালনায় শিশুসাহিত্যে বিশেষ অবদান রাখায় নকীব পদক-২০২৩ এ ৩জন গুণী সাহিত্যিক নকীব পদকে ভূষিত হন। তারা হলেন, মাওলানা মহিউদ্দিন খাঁন রহ. (মরণোত্তর), মাওলানা ইয়াহইয়া ইউসুফ নদভী ও আহমেদ রিয়াজ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার মহাপরিচালক মাওলানা ওবায়দুর রহমান খান নদভী, সাবেক সংসদ সদস্য ও সনিক প্রাইম গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. আক্কাস আলী সরকার, লেখক ও মুহাদ্দিস মুহাম্মদ যাইনুল আবিদীন, শিশু সাহিত্যিক ও গল্পকার এনায়েত রসূল, নন্দিত উপস্থাপক শাহ ইফতেখার তারিক, আওয়ার ইসলাম সম্পাদক হুমায়ুন আইয়ুব প্রমূখ

অনুষ্ঠানে জাতীয় সাহিত্য প্রতিযোগিতায় গল্প, প্রবন্ধ ও ছড়া ক্যাটাগরিতে ৯জন বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করে জাতীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন কলরব ও মানযিল শিল্পীগোষ্ঠী।




রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে জনদুর্ভোগ করলে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলো সভা-সমাবেশ করবে। এতে আমাদের কোনো হস্তক্ষেপ নেই। আমরা তাদের রাজনৈতিক কর্মসূচিতে বাধা দেব না। কিন্তু কেউ রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

মঙ্গলবার রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে দুই দিনব্যাপী (৮-৯ নভেম্বর) পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স কোয়ার্টারলি কনফারেন্সের প্রথম দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘পুলিশ বঙ্গবন্ধুর ‘জনগণের পুলিশ’ হয়ে জনগণের পাশে যেতে পেরেছেন। জনগণের কাছে পুলিশ নির্ভরতা ও আস্থার জায়গা তৈরি করতে পেরেছেন। এটা ধরে রাখতে হবে।‌’

পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জীবন বাজি রেখে কাজ করছেন বলেই সন্ত্রাস দমনে আজ আমরা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছি। আপনারা সফল হতে পেরেছেন বলেই জলদস্যু, বনদস্যু পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।’




জেলহত্যা দিবস আজ

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:

আজ ৩ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) জেলহত্যা দিবস। স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কময় দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি অবস্থায় মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনাকারী বাংলাদেশের প্রথম সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ, মন্ত্রিসভার সদস্য ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এএইচএম কামরুজ্জামানকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যার ধারাবাহিকতায় আড়াই মাসের মাথায় জাতীয় এই চার নেতাকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে ঘাতকরা। কারাগারের মতো কঠোর নিরাপত্তা প্রকোষ্ঠে এ ধরনের নারকীয় হত্যাকাণ্ড পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন।

বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর এই চার জাতীয় নেতাকে যথাযথ শ্রদ্ধা প্রদর্শনের মাধ্যমে দেশের ইতিহাসে অন্যতম বর্বরোচিত এই কালো অধ্যায়টিকে স্মরণ করবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন। দিনটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। এছাড়া আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।




সমুদ্র অঞ্চলের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় শক্তিশালী নৌবাহিনীর বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

ডিএনবি নিউজ ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের বিশাল সমুদ্র অঞ্চলের সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং সমুদ্র ভিত্তিক শক্তিশালী অর্থনীতি গঠনের জন্য শক্তিশালী নৌবাহিনীর কোনো বিকল্প নেই।

রোববার (৩০ অক্টোবর) গণভবন থেকে ভিডিও টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে ২টি মেরিটাইম প্যাট্রোল এয়ারক্রাফট (এমপিএ) সংযোজন এবং নৌবাহিনীর রীতি অনুযায়ী নামফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই নতুন ২টি এমপিএ সংযোজনের মাধ্যমে নেভাল এভিয়েশনের সক্ষমতা বহুলাংশে বৃদ্ধি পাবে এবং এর মাধ্যমে স্বল্প সময়ে দ্রুততার সাথে বাংলাদেশের সুবিশাল সমুদ্রসীমা টহল দেয়া আরও সহজতর হবে। এ সকল এমপিএ বাংলাদেশের স্বাধীন জলসীমার সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি সুনীল অর্থনীতির নিরাপত্তা রক্ষার্থে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের প্রতিহত করতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করতে সক্ষম হবে।

সরকারপ্রধান বলেন, বর্তমান সরকার দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকেই ফোর্সেস গোল ২০৩০ এর আলোকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে একটি যুগোপযোগী ত্রিমাত্রিক নৌবাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়ন, নৌবহরে যুদ্ধজাহাজ সংযোজন, বিদ্যমান জাহাজসমূহের অপারেশনাল সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং অপারেশনাল এভিয়েশন উইং গঠনসহ বিভিন্ন বাস্তবমুখী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। জাতির পিতার প্রণীত প্রতিরক্ষা নীতির আলোকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে একটি শক্তিশালী নৌবাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আধুনিক যুদ্ধজাহাজ, হেলিকপ্টার, মেরিটাইম প্যাট্রোল এয়ারক্রাফট এবং সাবমেরিনসহ আধুনিক যুদ্ধ সরঞ্জাম ও প্রযুক্তি সংযোজিত হয়েছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে একটি পূর্ণাঙ্গ ত্রিমাত্রিক নৌবাহিনী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ইতোমধ্যেই এমপিএ ও হেলিকপ্টার পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আধুনিক সকল সুবিধা সম্বলিত বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। এই সকল টহল বিমান সংযোজন দেশের সমুদ্র সম্পদ রক্ষা ও নিজ জলসীমায় যে কোনো ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

দেশের সার্বভৌমত্ব, সমুদ্রসীমার নিরাপত্তা রক্ষা ও চলমান অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা পালনের জন্য নৌবাহিনীর সদস্যদের কঠোর পরিশ্রম ও কর্তব্যনিষ্ঠার জন্য তিনি আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।